মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

| ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০

Campus Bangla || ক্যাম্পাস বাংলা

শিক্ষক নিবন্ধন সনদের মেয়াদ নিয়ে যা ভাবছে এনটিআরসিএ

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৭:২৩, ২৯ জানুয়ারি ২০২৪

শিক্ষক নিবন্ধন সনদের মেয়াদ নিয়ে যা ভাবছে এনটিআরসিএ

ফাইল ছবি

বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের সনদের মেয়াদ তিন বছর নির্ধারণ করার বিষয়ে চিন্তাভাবনা করছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। ৫ম গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের আগে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

সোমবার এনটিআরসিএ’র একটি সূত্র জানিয়েছে, শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার বিধিমালায় সনদের মেয়াদ তিন বছর উল্লেখ রয়েছে। এ বিষয়টি বাস্তবায়নে আপিল বিভাগ থেকেও তাগাদা দেওয়া হয়েছে। নিবন্ধন পরীক্ষার বিধিমালা বাস্তবায়নের বিষয়টি নিয়ে নতুন করে ভাবা হচ্ছে। এই বিধিমালা বাস্তবায়ন হলে একজন প্রার্থীর সনদের মেয়াদ হবে তিন বছর।

ওই সূত্র আরও জানায়, ১৮তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার পর নিবন্ধন সনদের মেয়াদ কত বছর করা হবে সে বিষয়ে বোর্ড সভা করা হবে। ওই সভায় সনদের মেয়াদের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। ৫ম গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পূর্বে বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হবে।

নাম অপ্রকাশিত রাখার শর্তে এনটিআরসিএ’র শিক্ষাতত্ত্ব ও শিক্ষামান শাখার এক কর্মকর্তা বলেন, ‘আগে থেকেই নিবন্ধন সনদের মেয়াদ তিন বছর। তবে মাঝখানে হাইকোর্টে রিটের কারণে সনদের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছিল। তবে বিষয়টি নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে বিধিমালা অনুযায়ী সব কাজ করার নির্দেশনা এসেছে। সেজন্য নিবন্ধন সনদের মেয়াদ নির্দিষ্ট করে দেওয়ার বিষয়ে চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।

সনদের মেয়াদ তিন বছর করা হলে শিক্ষক সংকট দূর হবে না এমন প্রশ্নের জবাবে ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, বিষয়টি আমরাও অনুধাবন করছি। আমাদের শূন্য পদ অর্ধ লাখের বেশি। ১৭তম নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন ২৩ হাজারের বেশি প্রার্থী। এদের মধ্যে অনেকের বয়স শেষ। এছাড়া ১৬তম নিবন্ধনধারীদের অধিকাংশেরই চাকরি হয়ে গেছে। সনদের মেয়াদ তিন বছর বেধে দেওয়া হলে ১ থেকে ১৫তম নিবন্ধনের অনেকেই গণবিজ্ঞপ্তিতে আবেদন করতে পারবেন না। বিষয়টি নিয়ে জটিলতা থাকলেও সরকারের নির্দেশনা মানতে হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এনটিআরসিএ’র সচিব ওবায়দুর রহমান বলেন, শিক্ষক নিবন্ধনের সনদের মেয়াদ কত বছর করা হবে সে বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। বিষয়টি নিয়ে আমরা সভা করব। এ সভা করতে কিছুদিন সময় লাগবে। সভা শেষে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো যাবে।