মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

| ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০

Campus Bangla || ক্যাম্পাস বাংলা

রাবির ভর্তি পরীক্ষায় চূড়ান্ত আবেদন পড়েছে ১ লাখ ৭০ হাজার

ক্যাম্পাস ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৯:৩২, ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

রাবির ভর্তি পরীক্ষায় চূড়ান্ত আবেদন পড়েছে ১ লাখ ৭০ হাজার

ফাইল ছবি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষার দ্বিতীয় ধাপের চূড়ান্ত আবেদন শেষ হয়েছে। ৩ ফেব্রুয়ারি শেষ হওয়া নির্ধারিত সময়ে তিন ইউনিটে চূড়ান্ত আবেদন জমা পড়েছে ১ লাখ ৭০ হাজার ৮০০টি।

সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পান্ডে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে দ্বিতীয় ধাপের চূড়ান্ত আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। তিন ইউনিট মিলে আবেদন জমা পড়েছে ১ লাখ ৭০ হাজার ৮০০টি। এর মধ্যে ‘এ’ ইউনিটে ৬৪ হাজার ৪০০টি, ‘বি’ ইউনিটে ৩৪ হাজার ৪০০টি এবং ‘সি’ ইউনিটে ৭২ হাজার।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রতিটি ইউনিটে ('এ', 'বি', 'সি') মাত্র ৭২ হাজার শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পাবে। সে হিসেবে তিন ইউনিট মিলে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পাবে ২ লাখ ১৬ হাজার ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী। প্রথম ধাপের চূড়ান্ত আবেদন সম্পন্ন করেছে ১ লাখ ৭০ হাজার ৮০০ জন ভর্তিচ্ছু। সে হিসেবে আর চূড়ান্ত আবেদন করার সুযোগ পাবে ৪৫ হাজার ২০০ ভর্তিচ্ছু। এর মধ্যে ‘এ’ ইউনিটে ৭ হাজার ৬০০ জন, ‘বি’ ইউনিটে ৩৭ হাজার ৬০০ জন এবং ‘সি’ ইউনিটে আর কোনো আবেদন নেওয়া হবে না। কারণ ৭২ হাজার আবেদন পূর্ণ হয়ে গেছে।

জানা গেছে, উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে প্রতিটি ইউনিটে সর্বোচ্চ ৭২ হাজার জন এবং বিভিন্ন কোটায় আবেদনকারীরা ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবেন। তিনটি ইউনিটে দ্বিতীয় দফায় আবেদন পূর্ণ না হওয়া সাপেক্ষে তৃতীয় দফায় ৬ থেকে ৭ ফেব্রুয়ারি এবং চতুর্থ দফায় আগামী ১০ ও ১১ ফেব্রুয়ারি চূড়ান্ত আবেদন করতে পারবেন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা।

ভর্তি পরীক্ষা কমিটি সূত্রে জানা যায়, যেকোনো পর্যায়ের জন্য নির্বাচিত প্রার্থীকে অবশ্যই সেই পর্যায়ের নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আবেদন সম্পন্ন করতে হবে। পরে আবেদনের আর কোনো সুযোগ থাকবে না।

প্রসঙ্গত, আগামী ৫ মার্চ ‘সি’ ইউনিট, ৬ মার্চ ‘এ’  ইউনিট এবং ৭ মার্চ ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। বহুনির্বাচনি পদ্ধতিতে ১০০ নম্বরে ভর্তি পরীক্ষায় ৮০টি প্রশ্ন থাকবে। সময় থাকবে এক ঘণ্টা। প্রতি চারটি ভুল উত্তরের জন্য এক নম্বর কাটা যাবে।